ⓘ নীতি - নীতিশাস্ত্র, পুবে তাকাও নীতি, পাউলির অপবর্জন নীতি, কবিতা, টেলর, স্বত্ববিলোপ নীতি, মহাজাগতিক নীতি ..

নীতিশাস্ত্র

নীতিশাস্ত্র দর্শনের এমন একটি শৃঙ্খলা যা মানুষের আচরণ এবং ভাল-মন্দ, নৈতিক প্রজ্ঞা, কর্তব্য, সুখ এবং সাধারণ কল্যাণের ধারণার সাথে এর সম্পর্ককে অধ্যয়ন করে।নীতিশাস্ত্র শব্দটি এসেছে লাতিন ভাষায় ethĭcu যার

পুবে তাকাও নীতি

ভারতীয় প্রজাতন্ত্রের "পুবে তাকাও" নীতি বা "লুক ইস্ট" পলিসি দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার দেশগুলির সঙ্গে ভারতের অর্থনৈতিক ও কৌশলগত বৈদেশিক সম্পর্ক বিস্তারের একটি কার্যকরী পরিকল্পনা নীতি। এই নীতির অন্যতম লক্ষ্য ভারতকে একটি আঞ্চলিক শক্তিতে পরিণত করা এবং আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে গণপ্রজাতন্ত্রী চীনের কৌশলগত প্রভাব খর্ব করা।

পাউলির অপবর্জন নীতি

যেসব মৌলিক কণিকার স্পিনের মান n + 1 / 2 {\displaystyle n+1/2} অর্থাৎ যারা পদার্থের গাঠনিক উপাদান, তাদের যেকোন দুইটি কখনো একই কোয়ান্টাম দশায় থাকতে পারে না --- এই নীতিকেই পাউলির বর্জন নীতি বলা হয়। সোজা কথায়, এমন দুইটি মৌলিক কণিকার অবস্থান এবং বেগ কখনো এক হবে না। অর্থাৎ, এমন দুটি কণিকাকে সংকীর্ণ থেকে সংকীর্ণতর কোন স্থানে আবদ্ধ করার চেষ্টা করলে এরা আরো বেশি বেগে ছোটাছুটি করতে থাকবে । যে সব মৌলিক কণা পাউলির অপবর্জন নীতি মেনে চলে, তাদের ফার্মিয়ন বলে। ইলেকট্রন, প্রোটন ও নিউট্রন এরা সবাই ফার্মিয়ন। আর যারা এই নীতি মানে না, তাদের বলে বোসন। ফোটন কণা একটি বোসন। মহাবিশ্ব যদি পাউলির বর্জন নীতিকে উ ...

নীতি কবিতা

নীতিকথার তীব্রতা কল্পনার স্পর্শে যাতে কোমল ও কান্তরূপ পরিগ্রহ করে, তা-ই কবির উদ্দেশ্য হওয়া উচিত। অর্থাৎ, জ্ঞানের কথা, নীতির কথা বা তত্ত্বকথাকে কবিত্ব-সুষমায় মণ্ডিত করতে না পারলে এই জাতীয় কবিতা ব্যর্থ হতে বাধ্য।

নীতি টেলর

টেইলর ২০০৯ সালে সনি টিভিতে সম্প্রচারিত পেয়ার কা বন্ধন নাটকে অভিনয়ের মাধ্যমে টেলিভিশন জগতে পদার্পণ করেন। তিনি ২০১৪ সালে এমটিভিতে সম্প্রচারিত যুব শো ক্যায়সি ইয়ে ইয়ারিয়া নাটকের প্রধান চরিত্র "নন্দিনী মূর্তি" চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে অধিক জনপ্রিয়তা অর্জন করেন, উক্ত নাটকে তার বিপরীতে পার্থ সামথান অভিনয় করেছেন। ২০১৫ সালের ডিসেম্বরে, যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদপত্র ইস্টার্ন আই দ্বারা ঘোষিত "৫০ সেক্সিয়েস্ট এশীয় নারী"র তালিকায় ১৫ নম্বর স্থান অধিকার করেন, যেটি কোন নবাগত অভিনেত্রীর ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ। ২০১৬ সালে তিনি "পারিন্দে কি পাগলপান"-এর চিত্রসঙ্গীতে সিদ্ধার্থ গুপ্তার বিপরীতে উপস্থিত হয়েছেন।

স্বত্ববিলোপ নীতি

স্বত্ববিলোপ নীতি বা ডক্ট্রিন অফ ল্যাপ্স হলো ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির দ্বারা আরোপিত ভারতীয় রাজ্য আত্মসাৎ করার নীতি৷ ১৮৫৯ খ্রিস্টাব্দ অবধি এই নীতি কার্যকরী ছিলো৷ এই নীতি অনুসারে ভারতীয় উপমহাদেশের সাম্রাজ্যবাদী শক্তি ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির কোন করদ অধিরাজ্যের রাজা যদি প্রজাবিদ্রোহ বা বিভিন্ন কারণে দ্বারা জর্জরিত তথা প্রকাশ্যে অপদার্থ প্রমাণিত হয় বা কোন দেশীয় অধিরাজ্যের রাজা যদি অপুত্রক অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন, তবে সেই রাজ্য একটি ত্রুটিপূর্ণ সামন্ত রাজ্য হিসেবে ব্রিটিশ শাসন ব্যবস্থায় ব্রিটিশ ভারতের অধীনস্থ হবে এবং দেশীয় রাজ্যের মর্যাদা হারাবে। কোন দেশীয় রাজ্যের দীর্ঘমেয়া ...

                                     

মহাজাগতিক নীতি

মহাজাগতিক মূলনীতি প্রকৃতপক্ষে কোন নীতি বা তত্ত্ব নয়, বরং এটি একটি স্বতঃসিদ্ধ। এটি বিপুল পরিমাণ মহাজাগতিক তত্ত্বের কার্যকারিতাকে সীমাবদ্ধ করে দেয়। মহাবিশ্বের বৃহৎ-পরিসর গঠন থেকে এই স্বতঃসিদ্ধটি উৎপত্তি লাভ করে। এই নীতির বিবৃতিটি হচ্ছে: